শুক্রবার, জুলাই ২৬, ২০২৪

ইমেইল মার্কেটিং

আসসালামু আলাইকুম, উড্ডয়নে আপনাকে স্বাগতম!
কেমন আছেন? আশা করি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছেন।

আজ আমরা আলাপ করবো ইমেইল মার্কেটিং (Email Marketing) সম্পর্কে।

আজ আমরা ইমেইল মার্কেটিং সম্পর্কে জানবো। বর্তমানে ইমেইল মার্কেটিং এখন সবচেয়ে সহজ এবং সবচেয়ে বেশী গ্রহনযোগ্য একটি ডিজিটাল মার্কেটিং, যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

একটি শক্তিশালী ও নির্ভরযোগ্য অনলাইন মার্কেটিং এর নাম হচ্ছে ইমেইল মার্কেটিং। ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি আপনার / আপনার কাষ্টমারের প্রোডাক্ট / সার্ভিস খুব সহজে সবাইকে জানাতে পারেন এবং আপনার আয় সক্ষমতা বাড়াতে পারেন। অল্প সময়ে অল্প খরচে লাখ লাখ মানুষকে জানিয়ে দিতে পারেন আপনার প্রতিষ্ঠানের নাম বা পন্যের বিবরন এবং দাম।

ইমেইল মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে আপনাকে কোন একটি প্রতিষ্ঠানের পণ্য বা সেবা সম্পর্কে কাস্টমারদের ইমেইল করতে হবে। ফলে কাস্টমার / গ্রাহক তাদের ইনবক্সে মেইলগুলি পেয়ে যাবে। ফলে গ্রাহকগণ ঐ পণ্যগুলি সম্পর্কে জানবে এবং হয়তো অনেকেই এ পণ্যগুলি ব্যবহার করতে বা কিনতে আগ্রহী হবে। ফলে এটির দ্বারা ঐ কোম্পানীর পণ্য বিক্রির হওয়ার সম্ভাবনা বাড়বে আরো দ্বিগুণ।

কিন্তু বর্তমানে অনেকেরই ধারণা যে, ইমেইল মার্কেটিং শুধুমাত্র মানুষের কাছে স্প্যাম মেসেজ / মেইল পাঠানো কিন্তু বাস্তবিক অর্থে এটি হচ্ছে কোন প্রতিষ্ঠানের হয়ে ক্রেতাদের কাছে কোন পণ্য বা সেবা সম্পর্কে ধারণা প্রদান করা বা তথ্য পৌঁছে দেয়া যা অনলাইন মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে খুবি শক্তিশালী ভাবে এবং খুব তাড়াতাড়ি হয়।

ইমেইল মার্কেটিং মুলত তিনটি ধাপে হয়ে থাকেঃ

১। লেটার এবং ইমেইল টেমপ্লেটঃ

প্রথমেই আপনাকে একটা মেইল / চিঠির টেম্পলেট বানাতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে মাথায় রাখতে হবে, আপনার মেইল / চিঠি-তে যে পণ্যটির সম্পর্কে লিখবেন সেটি দেখতে কেমন হবে, যাকে এই মেইলটি পাঠাবেন সে এটিকে কিভাবে নিবে। আপনার মেইল / চিঠির ভাষায় তিনি কি বিরক্ত হবেন? আপনার ইমেইলে কি কোন বিরক্তিকর লিখা লিখছেন? নাকি আপনার চিঠি পেয়ে তার আগ্রহ বাড়বে। এই বিষয়গুলো মূলত আপনার বিবেচনায় আনতে হবে।
ইমেইল টেমপ্লেটটা দেখতে যেন সুন্দর হয় সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। বর্তমানে অনেকেই মোবাইল ডিভাইস থেকে তাদের মেইল চেক করে। তাই মেইলটি রেসপন্সিভ টেমপ্লেইটের হলে ভালো হয়। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে কিন্তু প্রচুর পরিমাণে রেসপন্সিভ ইমেইল টেমপ্লেট ডিজাইনের কাজ পাওয়া যায়। ভালো রেসপন্সিভ ইমেইল টেমপ্লেট তৈরি করে থিমফরেষ্টে বিক্রি করে আয় করা যায়।

২। ইমেইল কালেক্ট করাঃ

এটি ইমেইল মার্কেটিং এর অন্যতম একটি কাজ, আপনাকে অবশ্যই প্রচুর পরিমাণে ভ্যালিড ইমেইল কালেক্ট করতে হবে। কারণ এই ইমেইল এড্রেসগুলোতেই কিন্তু আপনি আপনার / কাস্টমারের পণ্যে সম্পর্কে বর্ণনা দিয়ে মেইল পাঠাবেন এবং তাকে সেই পণ্য ক্রয় / ব্যাবহার করার জন্য উৎসাহিত করবেন। তাই যত বেশি ইমেইল সংগ্রহ করা যাবে পণ্য বিক্রি / ব্যাবহারের সম্ভাবনাও তত বেশি হবে।
ইমেইল এড্রেস কালেক্ট কয়েকটা পদ্ধতিঃ

* যারা নিয়মিত আপনার ব্লগ পড়ে তাদের থেকে ইমেইল এড্রেস কালেক্ট করুন। এবং তাদের থেকে অনুমতি নিয়ে নিন ভবিষ্যতে হয়তো আপনি তাদের ইমেইল পাঠাতে পারেন।
* একটা ব্লগ কনটেষ্ট আয়োজন করুন এবং মেইলগুলো সংগ্রহ করুন।
* আপনার ব্লগের পাশে একটা বিজ্ঞাপন দিনঃ যদি কেউ নিউজ আপডেট এবং বিভিন্ন কোম্পানীর সেরা অফার পেতে চায় তবে যেন তার মেইল এড্রেস ড্রপ করে।
* টুইটারে টুইট দিবেন এবং ইমেইল এড্রেস দেয়ার জন্য ইনভাইট করুন, কে কোন কোম্পানীর লেটেষ্ট নিউজ বা অফার জানতে চায় তারা যেন তাদের মেইল এড্রেস ড্রপ করে, অবশ্যই আপনার সাইনআপ ফরমের লিংক দিয়ে দিবেন সাথে মেইল বক্স।
* আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস ইউস করেন তাহলে আপনি ইমেইল কালেক্টটিং প্লাগইনস ইউস করুন।
তাছাড়াও বিভিন্নভাবে অনলাইন / অফলাইন থেকে মেইল এড্রেস কালেক্ট করা যায় তা করুন।

৩। ইমেইল ডেলিভারীঃ
ইমেইল মার্কেটিংয়ের জন্য ডেস্কটপবেস ইমেইল সার্ভার অথবা অনলাইন ইমেইল সার্ভার ব্যবহার করুন। কিন্তু আমার কাছে সবচেয়ে সুবিধাজনক পদ্ধতি হচ্ছে অনলাইন ইমেইল সার্ভার ব্যবহার করা। কারণ ডেস্কটপবেইস ইমেইল সার্ভার তৈরির জন্য আপনার কাছে একটি ভালো কনফিগারের পার্সোনাল কম্পিউটার এবং ভালো স্পীডের ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে। আরো থাকতে হবে একটি ইমেইল সেন্ডিং সফটওয়্যার। আর আপনি যদি এগুলো কিনতে চান তাহলে গুনতে হবে মোটা অংকের টাকা। এছাড়াও ডেস্কটপবেস ইমেইল সার্ভার ব্যাবহার করলে আপনার আইপি ব্ল্যাক লিস্ট হওয়া এবং মেইল স্প্যামে যাওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশী। সেই সাথে সার্ভার ক্রাশ হওয়ার ঝুঁকি তো থাকছেই। কিন্তু অনলাইন ইমেইল সার্ভারের খরচ তুলনামুলক অনেক কম সাথে ব্যাবহারও অনেক সহজ এবং নিরাপদ।

ইমেইল মার্কেটিং এর কিছু সুবিধাঃ

আগে ইমেইল-কে শুধু মাত্র যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ভাবা হতো কিন্তু বর্তমানের তথ্য প্রযুক্তি উন্নয়নের সাথে সাথে এরও অনেক উন্নয়ন হয়েছে। বর্তমান বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ছোট / বড় অসংখ্য প্রতিষ্ঠান তাদের পন্যের প্রচারের জন্য এবং তাদের বিভিন্ন সেবা প্রচারের জন্য ইমেইল মার্কেটিং সুবিধা ব্যবহার করে। ইমেইল মার্কেটিং এর অনেক সুবিধা রয়েছে। নিচে ইমেইল মার্কেটিং এর সুবিধাগুলো দেয়া হলোঃ

১. ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে অল্প সময়ে এবং অল্প পরিশ্রমে ভালো পরিমান অর্থ উপার্জন করা যায়।

২. ইমেইল মার্কেটিং-এ মেইল ডিজাইনের জন্য বেশি অর্থের প্রয়োজন হয়না।

৩. ইমেইল মার্কেটিং-এর জন্য আপনাকে উচ্চ পরিমানের হোস্টিং ফি বহন করতে হয়না।

৪. ইমেইল মার্কেটিং-এর মাধ্যমে আপনি আপনার নিজের সাইটের প্রচার, সেবা বিক্রি সাথে অন্যের পণ্য বিক্রি এবং পন্যের বিক্রয়কৃত কমিশন ইত্যাদি অনেক ভাবে আয় করতে পারবেন।

৫. ইমেইল মার্কেটিং-এর মাধ্যমে অন্য প্রতিষ্ঠানকে রেফার করা বা তাদের জন্য রিভিউ লিখে পূর্বেই সেই প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অর্থ আয় করা যায়।

লেখক পরিচিতিঃ

Faruk Hossain Mithu
Faruk Hossain Mithuhttps://mithu.kholifa.com
I'm Linux Admin, traveler with a passion for movies, tech and programming. Navigating the digital realm with expertise, I enjoy exploring diverse landscapes and staying at the forefront of technology trends. Code enthusiast and cinephile, blending a love for innovation with a sense of adventure.
- বিজ্ঞাপন -
সম্পর্কিত পোস্টগুলো
- বিজ্ঞাপন -

জনপ্রিয় পোস্টগুলো

- বিজ্ঞাপন -
error: Content is protected !!